মেসওয়াকের পরিমাণ সুন্নত অনুযায়ী কতটুকু মোটা ও লম্বা চাই । Bangla Islam

মেসওয়াকের পরিমাণ সুন্নত অনুযায়ী কতটুকু মোটা ও লম্বা চাই । Bangla Islam
মেসওয়াকের পরিমাণ সুন্নত অনুযায়ী কতটুকু মোটা ও লম্বা চাই । Bangla Islam

মেসওয়াকের পরিমাণ সুন্নত অনুযায়ী কতটুকু মোটা ও লম্বা হওয়া চাই।

সুন্নত অনুযায়ী মেসওয়াকের পরিমাণ মোটা ও লম্বা হওয়ার দিকদিয়ে কেমন হওয়া চাই। তা কি নিজের হাতের এক বিঘত হওয়া জরুরী এর চেয়ে বেশি বা কম হলে গুনাহ হবে?

কোন কিতাবে লেখা আছে এক বিঘত এর চেয়ে বেশি লম্বা হলে তাতে শয়তান বসে। এই কথাটি কতটুকু সত্য ?

সাথে সাথে বলুন মেসওয়াক কি পরিমান মোটা হতে হবে ? আজ আমরা উক্ত মাসআলাটি নিয়ে দলিল ভিত্তিক আলোচনা করব। ইনশা-আল্লাহ।

মেসওয়াকের পরিমাণ নিজের হাতের এক বিঘত চেয়ে বেশি না রাখাই উত্তম। বরং মেসওয়াক ব্যবহারের শুরুতেই তা এক বিঘত পরিমাণ রাখা উত্তম।

কম থাকলেও কোনো অসুবিধা নাই এবং তারপর তা ব্যবহার করতে করতে যদি ছোট হয়ে যায় তাতেই কোন অসুবিধা নাই। বরং যেই পরিমান পর্যন্ত ব্যবহারের উপযুক্ত থাকে ওই পরিমাণ পর্যন্ত ব্যবহার করা যাবে।

সঠিকটা আল্লাহ তাআলাই ভালো জানেন।

মেসওয়াকের পরিমাণ সুন্নত অনুযায়ী কি তার হুকুমের দলিল সমূহ।

وَ) نُدِبَ إمْسَاكُهُ (بِيُمْنَاهُ) وَكَوْنُهُ لَيِّنًا، مُسْتَوِيًا بِلَا عُقَدٍ، فِي غِلَظِ الْخِنْصَرِ وَطُولِ شِبْرٍ.

وَيَسْتَاكُ عَرْضًا لَا طُولًا، وَلَا مُضْطَجِعًا؛ فَإِنَّهُ يُورِثُ كِبَرَ الطِّحَالِ،

وَلَا يَقْبِضُهُ؛ فَإِنَّهُ يُورِثُ الْبَاسُورَ، وَلَا يَمُصُّهُ؛
——–
ص114 – كتاب الدر المختار وحاشية ابن عابدين رد المحتار – سنن الوضوء

…………………………….

قَوْلُهُ:: وَنُدِبَ إمْسَاكُهُ بِيُمْنَاهُ) كَذَا فِي الْبَحْرِ وَالنَّهْرِ، قَالَ فِي الدُّرَرِ:

لِأَنَّهُ الْمَنْقُولُ الْمُتَوَارَثُ اهـ. وَظَاهِرُهُ أَنَّهُ مَنْقُولٌ عَنْ النَّبِيِّ – صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ 

لَكِنْ قَالَ مُحَشِّيهِ الْعَلَّامَةُ نُوحٌ أَفَنْدِي: أَقُولُ: دَعْوَى النَّقْلِ تَحْتَاجُ إلَى نَقْلٍ،

وَلَمْ يُوجَدْ. غَايَةُ مَا يُقَالُ أَنَّ السِّوَاكَ إنْ كَانَ مِنْ بَابِ التَّطْهِيرِ اُسْتُحِبَّ بِالْيَمِينِ كَالْمَضْمَضَةِ

وَإِنْ كَانَ مِنْ بَابِ إزَالَةِ الْأَذَى فَبِالْيُسْرَى وَالظَّاهِرُ الثَّانِي كَمَا رُوِيَ عَنْ مَالِكٍ.

وَاسْتُدِلَّ لِلْأَوَّلِ بِمَا وَرَدَ فِي بَعْضِ طُرُقِ حَدِيثِ عَائِشَةَ «أَنَّهُ – صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ 

كَانَ يُعْجِبُهُ التَّيَامُنُ فِي تَرَجُّلِهِ وَتَنَعُّلِهِ وَطُهُورِهِ وَسِوَاكِهِ» وَرُدَّ بِأَنَّ الْمُرَادَ الْبُدَاءَةُ بِالْجَانِبِ الْأَيْمَنِ مِنْ الْفَمِ اهـ مُلَخَّصًا

وَفِي الْبَحْرِ وَالنَّهْرِ وَالسُّنَّةُ فِي كَيْفِيَّةِ أَخْذِهِ أَنْ يَجْعَلَ الْخِنْصَرَ أَسْفَلَهُ وَالْإِبْهَامَ أَسْفَلَ رَأْسِهِ

وَبَاقِي الْأَصَابِعِ فَوْقَهُ كَمَا رَوَاهُ ابْنُ مَسْعُودٍ (قَوْلُهُ: وَكَوْنُهُ لَيِّنًا) كَذَا فِي الْفَتْحِ

وَفِي السِّرَاجِ: يُسْتَحَبُّ أَنْ يَكُونَ السِّوَاكُ لَا رَطْبًا يَلْتَوِي؛ لِأَنَّهُ لَا يُزِيلُ الْقَلَحَ وَهُوَ وَسَخُ الْأَسْنَانِ

وَلَا يَابِسًا يَجْرَحُ اللِّثَةَ وَهِيَ مَنْبَتُ الْأَسْنَانِ. اهـ. فَالْمُرَادُ أَنَّ رَأْسَهُ الَّذِي هُوَ مَحَلُّ اسْتِعْمَالِهِ يَكُونُ لَيِّنًا

أَيْ لَا فِي غَايَةِ الْخُشُونَةِ وَلَا غَايَةِ النُّعُومَةِ، تَأَمَّلْ.

(قَوْلُهُ: بِلَا عَقْدٍ) فِي شَرْحِ دُرَرِ الْبِحَارِ: قَلِيلُ الْعَقْدِ (قَوْلُهُ: فِي غِلَظِ الْخِنْصَرِ) كَذَا فِي الْمِعْرَاجِ

وَفِي الْفَتْحِ الْأُصْبُعِ (قَوْلُهُ: وَطُولِ شِبْرٍ) الظَّاهِرُ أَنَّهُ فِي ابْتِدَاءِ اسْتِعْمَالِهِ

فَلَا يَضُرُّ نَقْصُهُ بَعْدَ ذَلِكَ بِالْقَطْعِ مِنْهُ لِتَسْوِيَتِهِ، تَأَمَّلْ، وَهَلْ الْمُرَادُ شِبْرُ الْمُسْتَعْمِلِ أَوْ الْمُعْتَادِ؟

الظَّاهِرُ الثَّانِي لِأَنَّهُ مَحْمَلُ الْإِطْلَاقِ غَالِبًا (قَوْلُهُ: وَيَسْتَاكُ عَرْضًا لَا طُولًا)

أَيْ لِأَنَّهُ يَجْرَحُ لَحْمَ الْأَسْنَانِ. وَقَالَ الْغَزْنَوِيُّ: طُولًا وَعَرْضًا

وَالْأَكْثَرُ عَلَى الْأَوَّلِ بَحْرٌ، لَكِنْ وَفَّقَ فِي الْحِلْيَةِ بِأَنَّهُ يَسْتَاكُ عَرْضًا فِي الْأَسْنَانِ

وَطُولًا فِي اللِّسَانِ جَمْعًا بَيْنَ الْأَحَادِيثِ، ثُمَّ نُقِلَ عَنْ الْغَزْنَوِيِّ أَنَّهُ يَسْتَاكُ بِالْمُدَارَاةِ خَارِجَ الْأَسْنَانِ

وَدَاخِلَهَا أَعْلَاهَا وَأَسْفَلَهَا وَرُءُوسِ الْأَضْرَاسِ وَبَيْنَ كُلِّ سِنَّيْنِ.

 অন্য কিতাব থেকে উক্ত মাসআলাটির আরো দলিল।

و كذا في غنية المستملی (الحلبي الكبير)، ص: ۳۳، بیان فضيلة السواک، سهیل اکیڈمی، لاهور

و كذا في الفتاوى التاتارخانية : ۱۰۷/۱ ، الوضوء، إدارة القرآن، کراچی

ويصح بكل عود إلا الرمان والقصب لمضرتهما، وأن يكون طول شبر

مستعمله لأن الزائد يركب عليه الشيطان‘‘. حاشیة الطحطاوی علی مراقی الفلاح، ص: 67، قدیمی

Facebook Comments

1 Trackback / Pingback

  1. দাড়ি ও আঙ্গুল খিলাল করার সঠিক পদ্ধতি কি ? । Bangla Islam

Comments are closed.