ফজরের জামাত কখন করবে এবং কি পরিমাণ বিলম্ভ করা যাবে?

ফজরের জামাত কখন করবে
ফজরের জামাত কখন করবে

ফজরের জামাত কখন করবে এবং কি পরিমাণ বিলম্ভ করা যাবে?

সুবহে সাদিকের পর থেকে নিয়ে সূর্যোদয়ের পূর্ব পর্যন্ত ফজরের ওয়াক্ত। এখন প্রশ্ন হল যদি জামাতকে বিলম্ব করতে চায় তাহলে ফজরের জামাত কখন করবে

এবং ফজরের নামাজ এই পরিমাণ বিলম্ব করা কেমন যে, এক রাকাত পড়ার পর বা সালাম ফিরানোর পূর্বেই ওয়াক্ত চলে আসে।

আজ আমরা “ফজরের জামাত কখন করবে এবং কি পরিমাণ বিলম্ভ করা যাবে” এ বিষয়টি নিয়ে বাংলা ইসলাম (BanglaIslam .net)

এর পক্ষ থেকে দলিল ভিত্তিক আলোচনা করার চেষ্টা করব। ইনশা-আল্লাহ।

আল্লাহ তায়ালার প্রশংসা ও রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের উপর দুরুদ পাঠ করে শুরু করছি…

হাদীসে এসেছে ‏ أَسْفِرُوا بِالْفَجْرِ فَإِنَّهُ أَعْظَمُ لِلأَجْرِ অর্থাৎ সোবহে সাদিক আলোকিত হওয়ার পর ফজর পড়। কিন্তু নামাজ এ পরিমাণ সময় হওয়ার পূর্বেই শেষ করতে হবে

যে, যদি জামাত শেষ হওয়ার পর জানা যায়। নামাজ কোন-না কোন কারনে নষ্ট হয়ে গেছে তাহলে যেন সুন্নত মোতাবেক দ্বিতীয়বার সূর্যোদয়ের পূর্বেই আবার জামাত পড়া যায়।

আর ফজরের নামাজ এ পরিমাণ বিলম্ব করা যে, এক রাকাত পড়ার পর বা সালাম ফিরানোর পূর্বেই ওয়াক্ত চলে আসে।

তাহলে ঐ নামাজ নষ্ট হয়ে যাবে। সুতরাং এ পরিমাণ বিলম্ব করে জামাত পড়া জায়েজ নাই।

সঠিকটা আল্লাহ তাআলাই ভালো জানেন।

ফজরের জামাত কখন করবে এবং কি পরিমাণ বিলম্ভ করা যাবে তার দলিল সমূহ।

يُسْتَحَبُّ تَأْخِيرُ الْفَجْرِ وَلَا يُؤَخِّرُهَا بِحَيْثُ يَقَعُ الشَّكُّ فِي طُلُوعِ الشَّمْسِ

بَلْ يُسْفِرُ بِهَا بِحَيْثُ لَوْ ظَهَرَ فَسَادُ صَلَاتِهِ يُمْكِنُهُ أَنْ يُعِيدَهَا فِي الْوَقْتِ بِقِرَاءَةٍ مُسْتَحَبَّةٍ

كَذَا فِي التَّبْيِينِ وَهَذَا فِي الْأَزْمِنَةِ كُلِّهَا إلَّا صَبِيحَةَ يَوْمِ النَّحْرِ لِلْعَاجِّ بِالْمُزْدَلِفَةِ فَإِنَّ هُنَاكَ التَّغْلِيسُ أَفْضَلُ. هَكَذَا فِي الْمُحِيطِ.
——–
ص52 – كتاب الفتاوى الهندية – الفصل الثالث في بيان الأوقات التي لا تجوز فيها الصلاة وتكره فيها

وَالْمُسْتَحَبُّ لِلرَّجُلِ (الِابْتِدَاءُ) فِي الْفَجْرِ بِإِسْفَارٍ وَالْخَتْمُ بِهِ هُوَ الْمُخْتَارُ بِحَيْثُ يُرَتِّلُ أَرْبَعِينَ آيَةً

ثُمَّ يُعِيدُهُ بِطَهَارَةٍ لَوْ فَسَدَ. وَقِيلَ يُؤَخِّرُ حَدًّا؛ لِأَنَّ الْفَسَادَ مَوْهُومٌ

إلَّا لِحَاجٍّ بِمُزْدَلِفَةَ  فَالتَّغْلِيسُ أَفْضَلُ كَمَرْأَةٍ مُطْلَقًا. وَفِي غَيْرِ الْفَجْرِ

الْأَفْضَلُ لَهَا انْتِظَارُ فَرَاغِ الْجَمَاعَةِ

وَتَأْخِيرُ ظُهْرِ الصَّيْفِ  بِحَيْثُ يَمْشِي فِي الظِّلِّ

مُطْلَقًا  كَذَا فِي الْمَجْمَعِ وَغَيْرِهِ: أَيْ بِلَا اشْتِرَاطِ
——–
ص366 – كتاب الدر المختار وحاشية ابن عابدين رد المحتار – كتاب الصلاة

….

قَوْلُهُ: بِخِلَافِ الْفَجْرِ إلَخْ أَيْ فَإِنَّهُ لَا يُؤَدِّي فَجْرَ يَوْمِهِ وَقْتَ الطُّلُوعِ

لِأَنَّ وَقْتَ الْفَجْرِ كُلَّهُ كَامِلٌ فَوَجَبَتْ كَامِلَةً، فَتَبْطُلُ بِطُرُوِّ الطُّلُوعِ الَّذِي هُوَ وَقْتُ فَسَادٍ.
——–
ص373 – كتاب الدر المختار وحاشية ابن عابدين رد المحتار – كتاب الصلاة

Facebook Comments

2 Trackbacks / Pingbacks

  1. ইশরাকের সময় কখন শুরু হয় এবং সূর্যোদয়ে কত সময় লাগে - বাংলা ইসলাম
  2. কোন ধনী ব্যক্তি যদি যাকাত না দেয় তাহলে তার হুকুম কি? বাংলা ইসলাম

Comments are closed.