পূর্ণ মাথা, কান ও কানের ছিদ্র মাসেহ করার হুকুম কি । Bangla Islam

পূর্ণ মাথা, কান ও কানের ছিদ্র মাসেহ করার হুকুম কি । Bangla Islam
পূর্ণ মাথা, কান ও কানের ছিদ্র মাসেহ করার হুকুম কি । Bangla Islam

পূর্ণ মাথা, কান ও কানের ছিদ্র মাসেহ করার হুকুম কি

কোন এক ব্যক্তির মধ্যে মাথা কান ও কানের ছিদ্র মাসেহের ব্যপারে অলসতা দেখা যায়। সে সর্বদা অর্ধ মাথা মাসেহ করে পবিত্রতা অর্জন করে

এবং সে পবিত্রতা দিয়ে নামাজের ইমামতি ও অন্যান্য এবাদত বন্দেগী করে থাকে। তাকে এই ব্যাপারে জিজ্ঞেস করলে উত্তর দিয়ে থাকে ইহাতো সুন্নতে মুয়াক্কাদা।

যার কারণে অনেক লোক তার পিছনে নামাজ পড়া ছেড়ে দিয়েছে। এখন ওই ব্যক্তির নামাজের হুকুম কি ?

সাথে সাথে এটাও জানার বিষয় অযুর মধ্যে মাথা ও কান মাসেহের পর। হাতের কনিষ্ঠা আঙ্গুল কানের ছিদ্রে প্রবেশ করানোর হুকুম কি?

আজ আমরা মাথা কান ও কানের ছিদ্র মাসেহ করার মাসআলা দ্বয় নিয়ে দলিল ভিত্তিক আলোচনা করার চেষ্টা করব। ইনশা-আল্লাহ।

নামাজ ও অন্যান্য ইবাদতের ক্ষেত্রে সর্বপ্রথম পবিত্রতা অর্জন করা জরুরি। বিশেষ করে যিনি নামাজের ইমামতি করবেন।

পূর্ণ মাথা মাসেহ করা সুন্নতে মুয়াক্কাদা করার কারণে ফরজ নামাজ আদায় হয়ে যাবে। তার জন্য নামাজ পুনরায় পড়া ওয়াজিব নয়।

এখন লক্ষণীয় বিষয় হলো ঐ ব্যক্তির জন্য সুন্নতে মুয়াক্কাদা কে হালকা মনে করে,

তা ছেড়ে দেওয়া কোনোভাবেই উচিত নয়। কেননা কখনো কখনো সুন্নতে মুয়াক্কাদা ওয়াজিবের পর্যায়ে হয়ে থাকে।

তাই তার জন্য ভবিষ্যতে পূর্ণ মাথা ও কান মাসেহ করার প্রতি লক্ষ্য রাখা উচিত।

মাথা মাসেহ করার পর হাতের কনিষ্ঠা আঙ্গুল কানের ছিদ্রে প্রবেশ করিয়ে মাসেহ করা ফেকাহের পরিভাষায় মুস্তাহাব।

সঠিকটা আল্লাহ তাআলাই ভালো জানেন।

পূর্ণ মাথা কান ও কানের ছিদ্র মাসেহ করার দলিল সমূহ।

وَمَسْحُ كُلِّ رَأْسِهِ مَرَّةً مُسْتَوْعِبَةً، فَلَوْ تَرَكَهُ وَدَوَامَ عَلَيْهِ أَثِمَ
قَوْلُهُ: مُسْتَوْعِبَةً) هَذَا سُنَّةٌ أَيْضًا، كَمَا جَزَمَ بِهِ فِي الْفَتْحِ،

ثُمَّ نُقِلَ عَنْ الْقُنْيَةِ أَنَّهُ إذَا دَاوَمَ عَلَى تَرْكِ الِاسْتِيعَابِ بِلَا عُذْرٍ يَأْثَمُ،

قَالَ: وَكَأَنَّهُ لِظُهُورِ رَغْبَتِهِ عَنْ السُّنَّةِ،

قَالَ الزَّيْلَعِيُّ وَتَكَلَّمُوا فِي كَيْفِيَّةِ الْمَسْحِ. وَالْأَظْهَرُ أَنْ يَضَعَ كَفَّيْهِ وَأَصَابِعَهُ عَلَى مُقَدَّمِ رَأْسِهِ

وَيَمُدَّهُمَا إلَى الْقَفَا عَلَى وَجْهٍ يَسْتَوْعِبُ جَمِيعَ الرَّأْسِ ثُمَّ يَمْسَحُ أُذُنَيْهِ بِأُصْبُعَيْهِ. اهـ

——–
ص121 – كتاب الدر المختار وحاشية ابن عابدين رد المحتار – سنن الوضوء

………………….

(وَمِنْهَا) مَسْحُ كُلِّ الرَّأْسِ مَرَّةً. كَذَا فِي الْمُتُونِ وَالْأَظْهَرُ أَنَّهُ يَضَعُ كَفَّيْهِ وَأَصَابِعَهُ عَلَى مُقَدَّمِ رَأْسِهِ

وَيَمُدُّهُمَا إلَى قَفَاهُ عَلَى وَجْهٍ يَسْتَوْعِبُ جَمِيعَ الرَّأْسِ

ثُمَّ يَمْسَحُ أُذُنَيْهِ بِأُصْبُعَيْهِ وَلَا يَكُونُ الْمَاءُ مُسْتَعْمَلًا بِهَذَا

هَكَذَا فِي التَّبْيِينِ وَإِنْ دَاوَمَ عَلَى تَرْكِ اسْتِيعَابِ الرَّأْسِ بِغَيْرِ عُذْرٍ يَأْثَمُ. كَذَا فِي الْقُنْيَةِ.
——–
ص7 – كتاب الفتاوى الهندية – الفصل الثاني في سنن الوضوء

………………..

لَوْ مَسَحَ ثَلَاثًا بِمِيَاهِ، قِيلَ: يُكْرَهُ، وَقِيلَ: إنَّهُ بِدْعَةٌ، وَقِيلَ: لَا بَأْسَ بِهِ

وَفِي الْخَانِيَّةِ لَا يُكْرَهُ وَلَا يَكُونُ سُنَّةً وَلَا أَدَبًا

قَالَ فِي الْبَحْرِ وَهُوَ الْأَوْلَى إذْ لَا دَلِيلَ عَلَى الْكَرَاهَةِ. اهـ
——–
ص121 – كتاب الدر المختار وحاشية ابن عابدين رد المحتار – سنن الوضوء

……………….

وَمِنْ الْأَدَبِ دَلْكُ أَعْضَائِهِ، وَإِدْخَالُ خِنْصَرِهِ صِمَاخَيْ أُذُنَيْهِ

——–
ص9 – كتاب الفتاوى الهندية – الفصل الرابع في المكروهات

……………………..

ويسن مسح الأذنين” بأن يمسح ظاهرهما بالإبهامين وداخلهما بالسبابتين وهو المختار كما في المعراج ويدخل الخنصرين في حجريهما ويحركهما كما في البحر عن الحلواني وشيخ الإسلام قوله: “مع بقاء البلة” أما مع فنائها بأن رفع العمامة بهما فلا يكون مقيما للسنة إلا بالتجديد
——–
ص72 – كتاب حاشية الطحطاوي على مراقي الفلاح شرح نور الإيضاح – فصل في سنن الوضوء

……………

وَإِدْخَالُ خِنْصَرِهِ الْمَبْلُولَةِ صِمَاخَ أُذُنَيْهِ عِنْدَ مَسْحِهِمَا
——–
ص125 – كتاب الدر المختار وحاشية ابن عابدين رد المحتار – سنن الوضوء

Facebook Comments

1 Trackback / Pingback

  1. অযুর সময় কথাবার্তা বললে নামাজ নষ্ট হয়ে যাবে ? । Bangla Islam

Comments are closed.